ওরে পাখি,

থেকে থেকে ভুলিস কেন সুর,

যাস নে কেন ডাকি–

বণীহারা প্রভাত হয় যে বৃথা

জানিস নে তুই কি তা।

অরুণ-আলোর প্রথম পরশ

গাছে গাছে লাগে,

কাঁপনে তার তোরই যে সুর

পাতায় পাতায় জাগে–

তুই যে ভোরের আলোর মিতা

জানিস নে তুই কি তা।

জাগরণের লক্ষ্মী যে ওই

আমার শিয়রেতে

আছে আঁচল পেতে,

জানিস নে তুই কি তা।

গানের দানে উহারে তুই

করিস নে বঞ্চিতা।

দুঃখরাতরে স্বপনতলে

প্রভাতী তোর কী যে বলে

নবীন প্রাণের গীতা,

জানিস নে তুই কি তা।

Advertisements