নকুলজাতীয় মাংসাশী জন্তুরা

বাদ্যযন্ত্র নিয়ে পথে নামছে

এদের হাসির আওয়াজ-কাশির আওয়াজ এক

এরা জঞ্জালের সাথে চলে গিয়েছিল ডাস্টবিনে

ঘোড়া পেয়ে এসেছে আবার

এরা খেচাখেচি করছে এখন

এদের তিল-সরিষা থেকে যে তেল বের হয়

তা স্পর্শ করা যায় না-খাদ্যে মেশানো যায় না

এদের হাতে-খড়ি হয়েছে হত্যা আর ধর্ষণে

গোখুরা-সাপ এদের সহযোগী বন্ধু

এরা খাঁটি দুধে ঘি তৈয়ার করতে পারে না

এদের পোশাক খুলে পড়েছিল মুক্তিযুদ্ধে

গায়ে মাংস লাগার পর

আবার নতুন পোশাক পরেছে, তাও খুলে পড়ছে-

এদের গা-গতর থেকে বমনের যাবতীয় দুর্গন্ধ বের হয়

এদের স্পর্শ করা যায় না।

এরা ক্রোধে মত্ত

এরা গিরগিটি

এরা ঘড়িয়াল,

এদের আওতায় জলাশয় রাখা যায় না।

এমন ঘণ্টা বাজাও-

এরা যেন বধির হয়ে যায়,

এমন আলো জ্বালো

এরা যেন অন্ধ হয়ে যায়।