ব্ল্যাকহোলের মধ্যে আমার বাস
যেখানে সূর্যও ভয়ে লুকোয়,
দিনের আলোও অন্ধকারের
গর্ভে নিঃশব্দে ঘুমিয়ে থাকে;
আকাশ দেখি না অনেকদিন
তারাগুলোও অচেনা অভিমানে।

অনেকদিন যাওয়া হয় নি
অ্যাসফল্টের রাস্তা ধরে
সেই স্বপ্ন মাখা ছোটো গ্রামে
যেখানে পাহাড়ি নদী অপেক্ষায় আছে,
যেখানে একটি কুঁড়ে ঘর আজও একা
রামধনুর সাত রং সাত সুর হয়ে ডেকে চলেছে।

এখানে কাঁচের টেস্টটিউবের মধ্যে
প্রতিনিয়ত তৈরি হচ্ছে নিঃসঙ্গতা,
ক্যান্সারের মতো ছড়িয়ে পড়ছে।
শহুরে জীবনের অভ্যন্তরে
নিজের অস্তিত্বকে খুঁজে বেড়াই,
একটি বিশাল শকুনের ছায়া
প্রতিনিয়ত খুবলে খাচ্ছে আমার আমিকে।

অনেকদিন যাওয়া হয়নি গঙ্গার ধারে
গোধূলি রাঙা বিকেলে
জীবনের আবর্তনে ধ্বংস থেকে
নতুন ভাবে সৃষ্ট আমি-
একসময় যার নিঃশ্বাসে কার্ফু লেগেছিল,
জীবনের ভুলভুলাইয়ায় আজ
ছড়িয়ে গেছি শূন্য থেকে মহাশূন্যে।