নাটকের যবনিকা এলে বদলে যায় পর্দার রঙ। যারা
অভিনয় করেছিল, তারা পোশাক পাল্টে মিশে যায় জনস্রোতে।
হাততালি দিতে দিতে যারা উপভোগ করেছিল দৃশ্যাবলি-
তারাও ভুলে যায় বিগত সংলাপ।
নাটকটি মূলত সাজানো ছিল, বলতে বলতে নাট্যকার
হাত দেন পরবর্তী পরিচ্ছেদ পরিকল্পনায়। বোকা মাটির ঘ্রাণ
বুকে নিয়ে পাখিরা সেরে নিতে চায়
দেশান্তরের শেষপর্ব।
আমি তাকিয়ে থাকি। অনেক কিছু জানি- তবু বলতে
পারি না। অনেক কিছু দেখি- তবু বিশ্বাস করতে পারি না।
নীল সীমান্তসনদের লোভে যারা বিক্রি করে দেয়
আমার স্বদেশ,
দেশান্তরের হীন আশায় যারা তৈরি করে নাটকের
দৃশ্যান্তর, আজ তারাই বড় দেশ প্রেমিক!
আজ তাদের জন্যই হাত বাড়িয়ে থাকে রক্ষক প্রভু !
তারপর…..
আরও কোনো নাটকের জন্ম দেয়া যায় কী না-
তা ভেবে দেখতে পুনরায় নির্দেশ দেন
মহাসম্রাট প্রযোজক !