জর্নাল : ১৩৪৬ (কাব্যগ্রন্থ- শ্রেষ্ঠ কবিতা)-জীবনানন্দ দাশ

আজকে অনেকদিনের পরে আমি বিকেলবেলায় তোমাকে পেলাম কাছে; শেষ রোদ এখন মাঠের কোলে খেলা করে-নেভে; এখন অব্যক্ত ঘুমে ভ’রে যায় কাঁচপোকা মাছির হৃদয়; নদীর পাড়ের ভিজে মাটি চুপে ক্ষয় হ’য়ে […]

Read Article →

“হৃদয়ে প্রেমের দিন” -জীবনানন্দ দাশ

হৃদয়ে প্রেমের দিন কখন যে শেষ হয় — চিতা শুধু পড়ে থাকে তার, আমরা জানি না তাহা; — মনে হয় জীবনে যা আছে আজো তাই শালিধান রূপশালি ধান তাহা… রূপ, […]

Read Article →

আট বছর আগের এক দিন-জীবনানন্দ দাস

শোনা গেল লাশকাটা ঘরে নিয়ে গেছে তারে; কাল রাতে – ফাল্গুনের রাতের আধাঁরে যখন গিয়েছে ডুবে পঞ্চমীর চাঁদ মরিবার হল তার সাধ। বধূ শুয়ে ছিল পাশে – শিশুটিও ছিল; প্রেম […]

Read Article →

আকাশলীনা

সুরঞ্জনা, অইখানে যেয়োনাকো তুমি, বোলোনাকো কথা অই যুবকের সাথে ; ফিরে এসো সুরঞ্জনা : নক্ষত্রের রুপালি আগুন ভরা রাতে ; ফিরে এসো এই মাঠে, ঢেউয়ে ; ফিরে এসো হৃদয়ে আমার […]

Read Article →

বাংলার মুখ

বাংলার মুখ আমি দেখিয়াছি, তাই আমি পৃথিবীর রূপ খুঁজিতে যাই না আর : অন্ধকারে জেগে উঠে ডুমুরের গাছে চেয়ে দেখি ছাতার মতো ব্ড় পাতাটির নিচে বসে আছে ভোরের দয়েলপাখি – […]

Read Article →

আকাশে সাতটি তারা-জীবনানন্দ দাশ

আকাশে সাতটি তারা যখন উঠেছে ফুটে আমি এই ঘাসে ব’সে থাকি; কামরাঙা লাল মেঘ যেন মৃত মনিয়ার মর্তো গঙ্গাসাগরের ঢেউয়ে ডুবে গেছে- আসিয়াছে শান্ত অনুগত বাংলার নীল সন্ধ্যা- কেশবতী কন্যা […]

Read Article →

আকাশে সাতটি তাঁরা-জীবনানন্দ থেকে গ্রন্থিত

ছেলে: আকাশে সাতটি তারা যখন উঠেছে ফুটে আমি এই ঘাসে ব’সে থাকি; বাংলার নীল সন্ধ্যা-কেশবতী কন্যা যেন এসেছে আকাশে; আমার চোখের পরে আমার মুখের পরে চুল তার ভাসে; পৃথিবীর কোনো […]

Read Article →

অদ্ভুত আঁধার এক-জীবনানন্দ দাশ

অদ্ভুত আঁধার এক এসেছে এ পৃথিবীতে আজ, যারা অন্ধ সবচেয়ে বেশি আজ চোখে দেখে তারা; যাদের হৃদয়ে কোনো প্রেম নেই-প্রীতি নেই-করুনার আলোড়ন নেই পৃথিবী অচল আজ তাদের সুপরামর্শ ছাড়া। যাদের […]

Read Article →

বনলতা সেন-জীবনানন্দ দাশ

হাজার বছর ধরে আমি পথ হাঁটিতেছি পৃথিবীর পথে, সিংহল সমুদ্র থেকে নিশীথের অন্ধকারে মালয় সাগরে অনেক ঘুরেছি আমি; বিম্বিসার অশোকের ধুসর জগতে সেখানে ছিলাম আমি; আরো দূর অন্ধকারে বিদর্ভ নগরে; […]

Read Article →